- জাতীয়, নরসিংদীর খবর, পলাশ, বেলাবো, মনোহরদী, রায়পুরা, লিড নিউজ, শিবপুর, সারাদেশ

রায়পুরায় ১০ ইউপিতে মনোনয়নপত্র দাখিল ৫০৩ প্রার্থীর

এ.কে.এম. সেলিম
নরসিংদীর রায়পুরা উপজেলার ১০ টি ইউনিয়নে নির্বাচন আগামী ১১ নভেম্বর। স্থানীয় সরকার নির্বাচনের সবচেয়ে বড় আয়োজনে সর্বত্রই এখন ভিন্ন আমেজ। চায়ের দোকানে বসে চায়ের কাপের নির্বাচনী ঝড় ছড়িয়ে পড়েছে পাড়া- মহল্লার অলি গলিতে।

দ্বিতীয় ধাপে ঘোষিত তফসিল অনুযায়ী রায়পুরার ১০ টি ইউনিয়নে চেয়ারম্যান প্রার্থীর সংখ্যা ৬৩ জন। মোট মনোনয়নপত্র দাখিল করেছন ৫০৩ জন প্রার্থী।

বিএনপি ও জাতীয় পার্টি ১০ ইউনিয়নের কোথাও দলীয় প্রার্থী দেয়নি। নির্বাচনে অংশ নিয়েছে শুধু আওয়ামিলীগ ও ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ। আর অধিকাংশ প্রার্থী আওয়ামিলীগের হয়েও নৌকা না পেয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থী হিসেবে নির্বাচনে অংশ নিচ্ছেন।

উপজেলা নির্বাচন অফিস সূত্রে জানা যায়, ১১ নভেম্বর অনুষ্ঠিতব্য নির্বাচনে চেয়ারম্যান প্রার্থী ৬৩ জন, সাধারণ সদস্য ( মেম্বার) ৩২৪ জন এবং সংরক্ষিত মহিলা সদস্য প্রার্থী ১১৬ জন।

৬৩ জন চেয়ারম্যান প্রার্থীর মধ্যে আওয়ামিলীগের নৌকা প্রতীকে ১০ জন,
ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশ’র ৬ জন এবং স্বতন্ত্র প্রার্থী ৪৭ জন। স্বতন্ত্রদের প্রায় সবাই ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের নেতা কর্মী।দল ক্ষমতায় থাকায় কেউ ছাড় দিতে রাজি নয় বিধায় বেড়েছে স্বতন্ত্র প্রার্থীর সংখ্যা। অনেকেই মনে করছেন দীর্ঘদিন ক্ষমতায় থাকা আওয়ামীলীগের শত্রু এখন আওয়ামীলীগ। বিএনপি নির্বাচনে অংশ না নিলেও থেমে নেই নেতা কর্মীরা। কিছু কিছু ইউনিয়নে তারাও ব্যস্ত হয়ে পড়েছন কিভাবে নৌকা কে পরাজিত করা যায়।সেক্ষেত্রে স্বতন্ত্র প্রার্থীদের কাছে কদর বেড়েছে বিএনপির।

রায়পুরার ১০ ইউনিয়নে ৬৩ জন প্রার্থীর মধ্যে আমিরগঞ্জ ইউনিয়নে আ’লীগের ১ জন, স্বতন্ত্র ৩ জন এবং ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের ১ জন। বাঁশগাড়ি ইউনিয়নে আ’লীগের ১ জন এবং স্বতন্ত্র ৫ জন।চরসুবুদ্ধি আ’লীগের ১ জন, স্বতন্ত্র ৬ জন এবং ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের ১ জন। চরমধুয়া ইউনিয়নে আ’লীগের ১ জন, স্বতন্ত্র ৫ জন এবং ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের ১ জন। হাইরমারায় আ’লীগের ১ জন স্বতন্ত্র ২ জন এবং ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের ১ জন।মির্জানগরে আ’লীগের ১ জন, স্বতন্ত্র ৫ জন এবং ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের ১ জন। মির্জারচরে আ’লীগের ১ জন এবং স্বতন্ত্র ৬ জন। নিলক্ষায় আ’লীগের ১ জন এবং স্বতন্ত্র ৬ জন। পাড়াতলী আ’লীগের ১ জন, স্বতন্ত্র ৬ জন এবং ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের ১ জন। শ্রীনগর ইউনিয়নে আ’লীগের ১ জন, স্বতন্ত্র ২ জন এবং ইসলামী আন্দোলন বাংলাদেশের প্রার্থী ১ জন।

তালিকায় ১০ জন নৌকার মাঝির মধ্যে এবার নতুন মুখ ৫ জন। বাদ পড়েছেন বর্তমান ৫ চেয়ারম্যান। বাদ পড়াদের মধ্যে স্বতন্ত্র ও গত বারের নৌকা প্রতীক নিয়ে নির্বচিতরাও আছে।